চিলিকে হারিয়ে তৃতীয় আর্জেন্টিনা; সব ছাপিয়ে শিরোনাম হল মেসির লাল কার্ড

কোপা আমেরিকার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে চিলিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা কিন্তু ম্যাচের জয়-পরাজয় ছাপিয়ে গেছে লিওনেল মেসির তার ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো লাল কার্ড দেখা।

মেসির এ্যাসিস্টে সার্জিও আগুয়েরো (১২) এবং সেলসোর এ্যাসিস্টে পাওলো দিবালা (২২) গোল করে ম্যাচের প্রথম দিকেই নেতৃত্ব নিয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু মেসির লাল কার্ডটি (৩৮) আর্জেন্টিনার তাল নষ্ট করে দেয়।

চিলির ডিফেন্ডার গ্যারি মেডেলের সাথে ধাক্কা-ধাক্কির জেরে রেফারি দুজনকেই লাল কার্ড দেখিয়ে বসেন। ম্যাচজুড়ে ফাউলের ছড়াছড়ি থাকার কারণে ইতিমধ্যেই লাতিন ফুটবলের পুরনো সৌন্দর্য নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠেছে। রেফারির এমন লঘু পাপে গুরুদন্ড দেওয়ায় রেফরিংমান নিয়েও এখন বিচার বিশ্লষণ চলছে।

আর্জেন্টিনা ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকা অবস্থায় মেসি মেডেলকে কঠিন চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। মেডেল তখন মাঠের বাইরে ছিটকে যান। ম্যাচ রেফারি হস্তক্ষেপ করার আগে দুইজন খেলোয়াড়ই আক্রমনাত্মকভাবে নিজেরা বুক দিয়ে একে অপরকে বেশ কয়েকবার ধাক্কা দিতে থাকেন ও চেঁচিয়ে উঠেছিলেন। রেফারি ঝড় থামাতে উভয়ের জন্য লাল কার্ড বের করে বসেন তৎক্ষণাতই।

২০০৫ সালে জাতীয় দলে অভিষেকের পর থেকে প্রথমবারের মত দেশের জন্য সিনিয়র দলের খেলায় নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয় তাকে।

 

 

মেসির লাল কার্ডের পর আর্জেন্টিনা সেভাবে সুযোগ তৈরি করতো না পারলেও চিলি আর্জেন্টিনার লিড অর্ধেক করে দ্বিতীয়ার্ধের ১৪ মিনিট পর ভিদালের পেনাল্টি গোলে।

 

 

টানা দুই কোপার ফাইনালে চিলির কাছে হারার পর তৃতীয় বাছাইয়ের ম্যাচে আর্জেন্টিনা চিলির বিপক্ষে জয় পেয়ে এ চলতি আসরে তৃতীয় হল।