বেকহ্যাম অভিভূত ইংলিশ মেয়েদের পারফর্মেন্সে; নরওয়েকে উড়িয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড

ইতিহাসে দ্বিতীয় বারের মত ইংল্যান্ড মহিলা ফুটবল দল বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলছে। এবারের বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালিস্ট হতে লায়নেসরা নরওয়েকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে।

ফিল নেভিলের ইংল্যান্ড দলটি গতকাল প্রতিযোগিতার চতুর্থ সরাসরি জয় তুলে নিয়ে নিজেদের নতুন রেকর্ড করে। ফ্রান্সের রেকর্ড তাপমাত্রার দিনে ফুটবল খেলতে নেমেও লায়নেসরা কোন ঘাটতি রাখেনি পারফর্মেন্সে। গোল করা বা ডিফেন্স সব ক্ষেত্রেই এদিন অনবদ্য ছিল তারা।

 

 

মাত্র তিন মিনিটের মাথায় জিল স্কট বাম পোস্টে বল লাগিয়ে জালে পাঠান। যেটাই ইংল্যান্ডের দরকার ছিল, কিন্তু তারা সেখানেই থেমে ছিল না।

 

 

চল্লিশ মিনিটে, অ্যালেন হোয়াইট গোল করে ২-০’র লিড দেন দলকে সেই সাথে ইংল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৬ গোল চলতি আসরেরও যুগ্ম শীর্ষ স্কোরার হয়েছেন।

 

 

খেলাটি যখন নরওয়ের প্রায় নাগালের বাইরে ছিল ঠিক তখনই ইংল্যান্ডের লুসি ব্রোঞ্জের গোল। এক ঘন্টা পূর্ণ হওয়ার ঠিক আগে একটি সেট পিসে তিনি দর্শনীয় গোলটি করেন যা দেখে গ্যালারিতে থাকা ডেভিড বেকহ্যামও মুগ্ধ ও হয়ে যান।

 

 

বিগত ১২ মাসে ২ টি আন্তর্জাতিক টূর্ণামেন্টে সেমিফাইনালে খেলা, লিভারপুলের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং চেলসির ইউরোপা লিগ জয় এবং মহিলা জাতীয় দলের সেমিফাইনালের স্পট দিয়ে ইংল্যান্ড ফুটবলে বেশ সুসময়ই পার করছে।

 

 

 

আগামী মঙ্গলবার এই নারী দলের আরও একধাপ এগিয়ে যাওয়ারও সুযোগ রয়েছে।