ফুটবল নিয়মে আসতে যাছে বেশ কিছু পরিবর্তন: কার্যকর নেশন্স লীগ কাপে

ফুটবলকে আরও আকর্ষণীয় ও বিতর্কমুক্ত করে তুলতে বেশ কিছু নিয়মের পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিফার অঙ্গ সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি)। ফুটবলের নিয়ম-কানুন পরিবর্তনের বিষয়টি দেখে এই সংস্থাটিই।

পরিবর্তন আসা নিয়মগুলো কার্যকর হবে আগামী মৌসুম অর্থাৎ চলতি বছরের পহেলা জুন থেকে। চলুন পরিবর্তন হওয়া নিয়মগুলোতে একবার নজর বুলিয়ে নেওয়া যাক-

পেনাল্টি: ম্যাচ চলাকালীন সময়ের পেলান্টিতে কিক নেওয়ার পর গোলরক্ষক সেটিকে ফিরিয়ে দিলে ফিরতি শট নেওয়ার সুযোগ থাকে পেনাল্টি নেওয়া দলের ফুটবলারদের। এই সুযোগ আর থাকছে না। গোলরক্ষক পেনাল্টি শট ঠেকিয়ে দিলে পরে আর কিক নিতে পারবেন না কেউ।

হ্যান্ডবল: অনিচ্ছাকৃত হ্যান্ডবল হলে সেটি দেওয়ার বিষয়টি রেফারির উপর নির্ভর করত। অর্থাৎ রেফারি চাইলে ফাউল দিতেন না চাইলে দিতেন না। কিন্তু এখন ইচ্ছাকৃত হোক আর অনিচ্ছাকৃত হোক, উভয় অবস্থাতেই ফাউলের বাঁশি বাজাতে হবে রেফারিকে।

বিতর্কিত কৌশল অপসারণ: ফুটবলে প্রায়ই দেখা যায় এগিয়ে থাকা দল ম্যাচের শেষভাগে সময় নষ্ট করার চেষ্টা করেন। দলগুলো খেলোয়াড় পরিবর্তন করার নামে বাড়তি সময় নেয়। বদলি খেলোয়াড়রাও মাঠ ছাড়তে বেশি সময় নেওয়ার চেষ্টা করেন। বিতর্কিত এই কৌশল অপসারণ হচ্ছে। এখন বদলি খেলোয়াড় মাঠের যে প্রান্তে থাকবেন সেই প্রান্তের টাচলাইন দিয়েই তাকে মাঠ ত্যাগ করতে হবে।

ফ্রি-কিকে মানব প্রাচীর: ফ্রি-কিকের সময় এখন দুদলের খেলোয়াড়কেই মানব প্রাচীর করে দাঁড়াতে দেখা যায়। অ্যাটাকিং দলের খেলোয়াড়রা ফ্রি-কিক নিতে সুবিধা করে দেওয়ার জন্য মানব প্রাচীর করে দাঁড়ান। এটি নিয়ে হাতাহাতিও লেগে যায় সচরাচর। এই বিষয়ে পরির্তন আসছে। এখন আর অ্যাটাকিং দলের কেউ মানব দেয়াল করে দাঁড়াতে পারবেন না।

কোচদের কার্ড: ডাগ আউটে কোচদের লাল কার্ড বা হলুদ কার্ড দেওয়ার সিদ্ধান্তটি বাতিল করা হয়েছিল। এটি আবারও চালু হচ্ছে। অর্থাৎ খেলোয়াড়দের পাশাপাশি কোচদেরও লাল কার্ড বা হলুদ কার্ড দেখাতে পারবেন রেফারি।

সূত্র: মার্কা