আফগান খেলোয়ারদের কাছে জাতীয় দল থেকে আইপিএলের গুরত্ব বেশি

এশিয়ান ভক্তদের কাছে জাতীয় দলের হয়ে খেলা সবসময় আইপিএলের তুলনায় বেশি মর্যাদার হওয়ায় এশিয়ান খেলোয়াড়েরা পূর্বে এমনটি করেননি। তবে এইবার সেই পথে হাঁটলেন আফগানিস্তানের ৩ তারকা ক্রিকেটার রশিদ খান, মোহাম্মদ নবী ও মুজিবুর রহমান।

আফগানিস্তানের স্কটল্যান্ড ওয়ানডে সিরিজ শুরু হয় গত ৮ই মে । ২ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের জন্য স্কটল্যান্ডে এসে পৌছায় আফগানিস্তান দল গত সপ্তাহে। এই সফরের জন্য আলাদা কোন দল ঘোষণা করেনি আফগানিস্তান বোর্ড। বিশ্বকাপের দলটিকেই এইখানে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিলো। তবে আইপিএলে খেলা থাকায় দলের সাথে রশিদ খান ও মোহাম্মদ নবী কেউই যোগ দেননি। যার ফলে আজ (১০ মে) শুরু হওয়া ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচের একাদশে নেই এই দুই ক্রিকেটার।

আফগানিস্তান বোর্ডও আইপিএলে তাদের দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের খেলা থাকায় তাদেরকে জাতীয় দলের জন্য ফিরে আসতে বলেনি যেহেতু ভারতীয় বোর্ডের সাথে তাদের বেশ ভালো সম্পর্ক রয়েছে।তাই যখন ২ ওয়ানডে সিরিজে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছিলো তখন ছিলেন তারা ভারতে। তবে জাতীয় দলের খেলা বাদ দিয়ে ৮ তারিখ আইপিএলে দলের সাথে থেকেও খুব একটা লাভ হয়নি রশিদ খান ও মোহাম্মদ নবীদের। দিল্লীর কাছে হেরে আসর থেকে ছিটকে যেতে হয় রশিদের হায়দ্রাবাদকে।

আফগানিস্তানের খেলোয়াড়দের উল্টো পথেই হেঁটেছেন অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশী খেলোয়াড়েরা। ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়েরা পাকিস্তানের সাথে সিরিজ থাকা বেশ আগেভাগেই আইপিএল ছাড়েন। জাতীয় দলের কোন আন্তর্জাতিক সিরিজ না থাকলেও প্রস্তুতি ক্যাম্পের জন্য অজি খেলোয়াড়েরাও আইপিএল ছাড়েন গত মাসের শেষের দিকে।

বাংলাদেশি তারকা খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানও যথাসময়ে জাতীয় দলের সাথে থাকার জন্য আইপিএল ছাড়েন গত মাসের শেষের দিকে। দেখার বিষয় হবে ভবিষ্যতে আইপিএল জাতীয় দল বিতর্কে কোন পথে বেশি যেতে পছন্দ করবেন তারকা খেলোয়াড়েরা

Share:

Author: Wahed Murad

I am passionate for sports , specially in cricket and so i'll do my best to development of sports. I'm also teaching English language and trained at web design and development with fine web arts.