লড়াইটা স্পিনারদেরই

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে সেই লড়াইয়ে ছড়ি ঘোরাবেন স্পিনাররাই। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের উইকেট স্পিনের জন্য বিখ্যাত ছিল আগেও। তবে এবার রীতিমতো ঘটা করে উইকেটকে স্পিনারদের জন্য স্বর্গ হিসেবে তৈরি করা হয়েছে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের স্কোয়াডে ডাক পাওয়া পাঁচ বিশেষায়িত স্পিনারদের যারা একাদশে সুযোগ পাবেন, তাদের জন্য অপেক্ষা করছে বড় এক মঞ্চ। তবে কপাল পুড়তে পারে স্কোয়াডে ডাক পেয়ে হইচই ফেলে দেওয়া ১৭ বছর বয়সী ক্রিকেটার নাঈম হাসানের। তার বদলে একাদশে যেতে পারে চার বছর পর ডাক পাওয়া অভিজ্ঞ স্পিনার আব্দুর রাজ্জাককে।

অধিনায়ক হিসেবে মাহমুদউল্লাহ্‌ রিয়াদের এটি প্রথম টেস্ট। যদিও অধিনায়ক হিসেবে টেস্টে এমন অভিষেক যে চাননি রিয়াদ নিজেও! সহ-অধিনায়কের ঘাড়ে দায়িত্ব বর্তেছে যে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ইনজুরির কারণে! টেস্টের নড়বড়ে বাংলাদেশের হাতেগোনা কটা শক্ত খুঁটির একজন সাকিব। রিয়াদ নিজেও কদিন আগে সুযোগ পেতেন না টেস্ট দলে। সাকিব বিহীন ভঙ্গুর বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেওয়া তাই সহজ কাজ নয় মোটেও।

রিয়াদের পাশাপাশি এই ম্যাচে ভালো করার চাপ থাকবে অন্য দুই সিনিয়র- তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের উপর। তামিম ফর্মে আছেন, ঝলক দেখিয়েছেন ত্রিদেশীয় সিরিজেও। তবে বিগত কয়েকদিন ধরে ‘অসাড়’ মুশফিকের ব্যাট। সাদা পোশাকের ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব হারানোর পর এটিই আবার তার প্রথম টেস্ট। লঙ্কানদের অভিজ্ঞ বোলিং লাইনআপের বিপক্ষে ‘ব্যাটসম্যান’ মুশফিক কেমন করেন, সেটিও দেখার বিষয়।

তবে ঘুরেফিরে বারবার আলোচনায় আসছেন স্পিনাররাই। দীর্ঘদিন ধরে টেস্টে বাংলাদেশের স্পিন আক্রমণকে নেতৃত্ব দেওয়া সাকিবের অনুপস্থিতি দলের অন্য স্পিনাররা কীভাবে পূরণ করেন, সেটি হয়ে দাঁড়িয়েছে বড় এক প্রশ্নই। তাইজুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক ও মেহেদী হাসান মিরাজের সাথে বল ঘোরাতে পারেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতও। পেস আক্রমণভাগকে ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমান একাই সামলানোর সম্ভাবনা বেশি। দলে একাধিক পেসার নেওয়া যে আকাঙ্ক্ষিত উইকেটে হয়ে দাঁড়াবে রীতিমতো ‘বিলাসিতা’! বেতিন-বোলিংয়ের বাইরে গুঞ্জন আছে আরেকটি বিষয় নিয়েও- উইকেটের পেছনে গ্লাভস হাতে মুশফিকের বদলে দাঁড়াতে পারেন লিটন কুমার দাস!

ম্যাচ শুরুর আগে সম্ভাবনা সফরকারী শ্রীলঙ্কার দিকে হেলে থাকছে একটি মূলত কারণেই- সর্বশেষ ত্রিদেশীয় সিরিজে টাইগারদের বিপক্ষে হেসেখেলে জয়। নিজেদের শেষ পাঁচ টেস্টের চারটিতেই অপরাজিত থাকার স্বাদ দলটিকে দিবে বাড়তি প্রেরণা। অন্যদিকে বাংলাদেশ নিজেদের শেষ পাঁচ টেস্টের তিনটিতেই যে হেরেছে! কদিন আগেও বাংলাদেশের কোচ হিসেবে এই চট্টগ্রামে টেস্ট দেখে যাওয়া হাথুরুসিংহে এবার সাগরিকায় নামবেন লঙ্কানদের কোচ হিসেবে। টাইগারদের নাড়িনক্ষত্র জানা এই কোচও হয়ে উঠতে পারেন বড় হুমকি।

তবে সে যা-ই হোক, আপাতত সবার প্রত্যাশা একটাই- নোনা জলের তীর ঘেঁষা স্টেডিয়ামে বাঘ ও সিংহের এক জমজমাট লড়াই!

সম্ভাব্য একাদশ-

বাংলাদেশঃ তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ্‌ রিয়াদ (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস (উইকেটরক্ষক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, মুস্তাফিজুর রহমান।

শ্রীলঙ্কাঃ দিমুঠ করুণারত্নে, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, কুশাল মেন্ডিস, দীনেশ চান্দিমাল (অধিনায়ক), রোশেন সিলভা, নিরোশান ডিকওয়েলা (উইকেটরক্ষক), দিলরুয়ান পেরেরা, রঙ্গনা হেরাথ, সুরাঙ্গা লাকমল, লক্ষণ সান্দাকান/আকিলা ধনঞ্জয়া, লাহিরু গোমেজ।

Author: Wahed Murad

I am passionate for sports , specially in cricket and so i'll do my best to development of sports. I'm also teaching English language and trained at web design and development with fine web arts.