অবশেষে “গেইল শো ফিচার্ড বাই ম্যাককালাম ” দেখা গেল ।

Rangpur_Riders যহস

নবম ওভারে নাসিরের বলে আউট হওয়ার আগে ২১ বলে ৩১ রান করেন ম্যাককালাম। তাঁর ব্যাট থেকে আসে তিন চার আর তিন ছয়। অন্যপ্রান্তে ক্যারাবিয়ান দানব গেইল ছক্কার ফুলঝুরি ছুটিয়ে তুলে নেন এ মৌসুমের প্রথম ফিফটি। ৩৯ বলে ২ চার আর ৫ ছয়ে অর্ধশতক তুলেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তিনি।

বরাবরের মতই আবার ব্যর্থ হন শাহরিয়ার নাফিস। ১০৫ রানে তিন উইকেট হারিয়ে ফেলে রংপুর। ২১ বলে ২৫ করে মিথুন ফিরে গেলে রানের চাকা ধীর হয়ে যায় তাদের। এরপর থিসারা পেরেরার ১২ বলে ১৫ ও রবি বোপারার ১২ বলে ২৮ রানের ঝড়ে শেষ পর্যন্ত ১৬৯ রানে থামে রংপুরের ইনিংস। সিলেটের হয়ে সর্বোচ্চ দুই উইকেট নেন আবুল হাসান রাজু।

ব্যাট করতে নেমে রুবেল হোসেন , সোহাগ গাজি ও মাশরাফি বিন মর্তুজা এর সম্মিলিত আক্রমণে ব্যাপক চাপে পরে সিলেট সিক্সার্স। চার ওভারের মধ্যে ২৫ রানেই টপ ওয়ার্ডারের তিন উইকেট হারিয়ে বসে তারা। ৪ বলে ৮ রান করে ফিরে যান গুনাথিলাকা। ১১ বলে ১২ রান করেন আন্দ্রে ফ্লেচার। ৫ বলে ২ রান করেন পাকিস্তান রিক্রুট বাবর আজম।

জয়ের সূর্য যখন অস্ত যাচ্ছে ঠিক তখনই জয়ের আশা দেখান দুই দেশি নাসির হোসেন ও সাব্বির রহমান এর জুটি। দুইজন মিলে চালাতে থাকেন ব্যাট। একপেশে হতে যাওয়া ম্যাচটা দুলতে থাকে ঘড়ির কাটার মত।

দলীয় ১৪২ রানে ৪৯ বলে ৭০ রান করে সাব্বির রহমান আউট হয়ে গেলে শেষ হয়ে যায় সেই আশা। সাত চার আর দুই ছয় আসে ফর্মে ফেরা এই ব্যাটসম্যানের ব্যাট থেকে। তুলির শেষ আঁচড় আর দিতে পারেন নি নাসির হোসেন। ৪৩ বলে ৫০ করে অপরাজিত থাকেন তিনি। ব্রেসনান নেমে করেন ৯ বলে ১২। কিন্তু লক্ষ্যে আর পৌঁছাতে পারে নি তারা।

Author: Wahed Murad

I am passionate for sports , specially in cricket and so i'll do my best to development of sports. I'm also teaching English language and trained at web design and development with fine web arts.