ক্রিকেট নিজের মত চলে

bangladesh coach

দেশের ক্রিকেট অঙ্গন জুড়ে এখন একটাই আলোচনা- জাতীয় দলের প্রধান কোচের পদ থেকে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের পদত্যাগ। পরিসংখ্যানের বিচারে দেশের সবচেয়ে সফল এই কোচের বিদায়ে তৈরি হয়েছে দুটি পক্ষ; যার এক পক্ষ তার বিদায়ে জানিয়েছেন হতাশা, অন্য পক্ষ জানিয়েছেন সন্তুষ্টি। সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে হাথুরুসিংহের প্রভাব খাটানো সংক্রান্ত আলোচনা ওঠার পর অনেকেরই চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছিলেন কোচ।

জাতীয় দলের একসময়ের প্রভাবশালী ক্রিকেটার ও ঘরোয়া ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যান শাহরিয়ার নাফীস অবশ্য এই দুই পক্ষের কোনোটাতেই নন। তবে দূর থেকে তিনি দেশের সদ্য ‘সাবেক’ কোচকে জানিয়েছেন শুভকামনা।

শুক্রবার সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে নাফীস বলেন, ‘হাথুরুসিংহে ভালো কিছু সাফল্য ধরে এনেছিলেন। কিন্তু তিনি যদি কাজ করতে না চান বা তার যদি চুক্তিসংক্রান্ত কোনো জটিলতা থাকে, তাহলে তিনি চলে যেতেই পারেন। তবে ক্রিকেট এমন একটা খেলা যেটা কারো জন্য অপেক্ষা করে না। এমন নয় যে, তিনি না থাকলে কেউ প্রধান কোচ হবেন না। নিশ্চয়ই কেউ না কেউ তো দায়িত্ব নেবেন।’

হাথুরুসিংহের অধীনে কখনই খেলা হয়নি নাফীসের। ভালো পারফর্ম করার পরও তাকে জাতীয় দলে জায়গা না দেওয়ায় অবশ্য বিতর্ক আছেই। তবে যত যা-ই হোক, বিদায়ী কোচকে শুভকামনা জানিয়েছেন তিনি, ‘তার জন্য শুভকামনা রইল। আশা করছি, বাংলাদেশ দল যে সফলতার পথে ছিল, সেখানেই থাকবে। তার নির্দেশনায় বাংলাদেশ ভালো খেলছিল। মূল খেলাটা কিন্তু ক্রিকেটাররাই খেলে। একজন ব্যক্তির জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেটের কোনো ক্ষতি হবে না।’

নাফীস আরও বলেন, ‘কোনো কোচ অভিজ্ঞতাকে গুরুত্ব দেন, কেউ আবার তারুণ্যকে গুরুত্ব দেন। চন্ডিকা অনেক সাফল্য দিয়েছেন। তাকে নিয়ে খুব বেশি আলোচনা করে এখন লাভ নেই। উনি যে ভুল করেছেন তা কিভাবে শুধরে নেয়া যায় বা উনি যে সফলতা দিয়েছেন সেটা ধরে রাখা গুরুত্বপূর্ণ।’

তিনি বলেন, ‘দুঃখজনকভাবে আমরা শেষ ম্যাচটা হেরেছি। তাসকিনের ওই একটা ওভার ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট ছিল। পরবর্তী ম্যাচ জিতে আমরা আবার জয়ের ধারায় ফিরব।’

Author: Wahed Murad

I am passionate for sports , specially in cricket and so i'll do my best to development of sports. I'm also teaching English language and trained at web design and development with fine web arts.