আন্তর্জাতিক ফুটবল

বাংলাদেশের সাথে ম্যাচের আগে নেপাল দলে করোনার থাবা

বাংলাদেশ ফুটবল দলের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে নেপাল। দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ কে সামনে রেখে আজ থেকেই অনুশীলন শুরু করেছে নেপাল দল। অনুশীলন চলছে কাঠমান্ডুতে। কিন্তু তারা একটা হোঁচট খেয়েছে ইতোমধ্যেই। অনুশীলন শুরু করতে না করতেই ৪ খেলোয়াড় শনাক্ত হয়েছেন করোনা পজিটিভে। খবরটির সুত্র স্বয়ং অল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (আনফা)।

২০১৫ এর নেপালের ভূমিকম্পের কথা কারওই অজানা নয়। সে ভূমিকম্পের ধাক্কায় দুমড়ে যায় কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়াম। পুনর্নির্মাণ করা হয় সেটি, এবং এরপরে আজই প্রথম সেই মাঠে অনুশীলন করতে নামে নেপাল দল। করোনা পরীক্ষার নমুনা গতকাল সংগ্রহ করে, পরীক্ষা করা হলে চার জনের করোনা শনাক্ত হয়। তাদেরকে আপাতত আইসোলেশনে রাখা হয়েছে এবং তারা অনুশীলনের বাইরে আছেন।

আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর ঠিক করা হয়েছে এই প্রীতি ম্যাচটির জন্যে। ম্যাচ ভেন্যু বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম।

নেপাল ফুটবল ফেডারেশনের ওয়েবসাইটে এই চার খেলোয়াড়দের নিয়ে বলা হয়, “ডাক পাওয়া ৩৪জন খেলোয়াড়দের মধ্যে ৪জন করোনা শনাক্ত হয়েছে। বুধবার তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।”

বাংলাদেশ দলের অনুশীলন শুরু হয় ২৪অক্টোবর থেকেই। আজই ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন অধিনায়ক জামাল ভূইয়া ও প্রধান কোচ জেমি ডে। তারা যোগ দেয়াতে বাংলাদেশ দল যেন পূর্ণতা পেয়েছে। একটি ভালো খবর হলো, বাংলাদেশ দলের কোনও খেলোয়াড় এখনও করোনা আক্রান্ত হননি। এর আগে আগস্টে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইপর্ব এর আগে ক্যাম্প শুরু হয় ৩৬ জনের। সেখানে মূলত বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই ছিলেন করোনা আক্রান্ত।

To Top