বাংলাদেশ ক্রিকেট

পরিসংখ্যানে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ

গতকাল মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের ফেভারিট নাজমুল একাদশকে ৭ উইকেটে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ, এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘ প্রায় ৭ মাস পর বাংলাদেশে মাটিতে কোন প্রতিযোগিতামুলক টুর্নামেন্ট শেষ হলো। দীর্ঘদিন পর খেলা মাঠে গড়ানোয় কিছুটা নড়বড়ে ছিলো ব্যাটসম্যানেররা, তবে সুযোগ পেয়েই আগুন ঝড়িয়েছেন পেসাররা।

দীর্ঘ বিরতির পর বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ দিয়েই মাঠে ফিরেছিলো ক্রিকেটাররা, ৩ দলের এই প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্টে গ্রুপ পর্বে প্রতিটা দল ৪ টি করে ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলো। যেখানে সর্বোচ্চ ৩ টিতে জিতে শীর্ষ দল হিসেবে ফাইনালে পৌঁছেও ব্যাটিং ব্যর্থতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়া হয়নি নাজমুল একাদশের, তবে ব্যক্তিগত পারফর্মেন্সে বেশি উজ্জ্বল ছিল নাজমুল একাদশের ক্রিকেটাররা। ব্যাটিংয়ে সেরা মুশফিকুর, বোলিংয়ে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক হয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

  • টিম পরিসংখ্যান

সর্বোচ্চ জয় – ৩ (নাজমুল একাদশ ও মাহমুদউল্লাহ একাদশ)
ইনিংসে সর্বোচ্চ সংগ্রহ – ২৬৪/৮ (নাজমুল একাদশ, প্রতিপক্ষ মাহমুদউল্লাহ একাদশ)
ইনিংসে সর্বনিম্ন সংগ্রহ – ১০৩/১০ (তামিম একাদশ, প্রতিপক্ষ মাহমুদউল্লাহ একাদশ)
সবচেয়ে বড় জয় (রান) – ১৩১ (নাজমুল একাদশ, প্রতিপক্ষ মাহমুদউল্লাহ একাদশ)
সবচেয়ে জয় (উইকেট) – ৭ (মাহমুদউল্লাহ একাদশ, প্রতিপক্ষ নাজমুল একাদশ)
ম্যাচে সর্বোচ্চ রান – ৪৪৩ (মাহমুদউল্লাহ একাদশ – তামিম একাদশ)

  • ব্যক্তিগত পরিসংখ্যান

ব্যাটিংঃ

  • সর্বোচ্চ রান

১৷ মুশফিকুর রহিম – ২১৮
২৷ ইরফান শুক্কুর – ২১৪
৩৷ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ – ১৬২
৪৷ আফিফ হোসেন – ১৫৭
৫৷ ইমরুল কায়েস – ১৪৬
৫৷ নুরুল হাসান সোহান – ১০৮

  • সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস 

১৷ মুশফিকুর রহিম – ১০৩
২৷ আফিফ হোসেন – ৯৮
৩৷ মাহেদি হাসান – ৮২
৪৷ ইরফান শুক্কুর – ৭৫
৫৷ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ – ৬৭

সর্বোচ্চ স্ট্রাইকরেট – ১১৬.৪৮ (মাহেদি হাসান)
সর্বোচ্চ ফিফটি – ২ (মুশফিক, ইরফান, মাহমুদউল্লাহ)
সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি – ১ (মুশফিকুর রহিম)
সর্বোচ্চ ছয় – ৭ (ইমরুল কায়েস)

  • সর্বোচ্চ উইকেট 

১৷ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন – ১২
২৷ রুবেল হোসেন – ১২
৩৷ সুমন খান – ৯
৪৷ মুস্তাফিজুর রহমান – ৮
৫৷ আল-আমিন হোসেন – ৮

  • সেরা বোলিং 

১৷ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন – ৫/২৬
২৷ সুমন খান – ৫/৩৮
৩৷ রুবেল হোসেন – ৪/৩৪
৪৷ তাসকিন আহমেদ – ৪/৩৬
৫। শরিফুল ইসলাম – ৪/৩৭

  • বোলিং অ্যাভারেজ

১৷ সাইফুদ্দিন – ১০.৩৩
২৷ রুবেল – ১৩.৪১
৩৷ সুমন খান – ১৩.৪৪
৪৷ মুস্তাফিজ – ১৪.৭৫
৫৷ নাসুম – ১৬.৩৩
৮৷ রিশাদ – ২৪.২৫

  • সেরা অলরাউন্ডার

১৷ সাইফুদ্দিন – ৬৩ রান ও ১২ উইকেট
২৷ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ – ১৬২ রান ও ২ উইকেট
৩৷ মাহেদি হাসান – ১০৬ রান ও ২ উইকেট
৪৷ মেহেদি হাসান মিরাজ – ১৬ রান ও ৩ উইকেট
৫৷ সৌম্য সরকার – ৫০ রান ও ২ উইকেট

বেস্ট অ্যাভারেজ – ১০.৩৩ (মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন)
বেস্ট ইকোনমি – ৩.৪৬ (অন্তত ১০ ওভার, রাকিবুল হাসান)
ইনিংসে ৫ উইকেট – ১ (সাইফুদ্দিন, সুমন খান)

ফিল্ডিং পরিসংখ্যানঃ

সর্বোচ্চ ডিশমিসাল – ৯ (নুরুল হাসান সোহান)
সর্বোচ্চ ক্যাচ – ৪ (সাব্বির রহমান – মোসাদ্দেক হোসেন)

টুর্নামেন্টে ধারাবাহিক পারফর্মেন্সের স্বীকৃত স্বরুপ বেশকিছু ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে, যেখানে টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মুশফিকুর রহিম হয়েছেন বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের সেরা ক্রিকেটার। এছাড়াও পুরো টুর্নামেন্টে দারুণ ব্যাট করা ইরফান শুক্কুর পেয়েছেন টুর্নামেন্টের সেরা ব্যাটসম্যানের স্বীকৃতি, সেরা বোলার হয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, সেরা ফিল্ডার নুরুল হাসান সোহান।

  • বিসিবি প্রেসিডেন্ট কাপের ব্যক্তিগত অর্জনঃ

বেস্ট ব্যাটসম্যান অব দ্যা ম্যাচ – ইরফান শুক্কুর
বেস্ট বোলার অব দ্যা ম্যাচ – সুমন খান
বেস্ট ফিল্ডার অব দ্যা ম্যাচ – নুরুল হাসান সোহান
ম্যান অব দ্যা ফাইনাল – সুমন খান

প্লেয়ার অব দ্যা টুর্নামেন্ট – মুশফিকুর রহিম
ব্যাটসম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্ট – ইরফান শুক্কুর
বোলার অব দ্যা টুর্নামেন্ট – রুবেল হোসেন
ফিল্ডার অব দ্যা টুর্নামেন্ট – নুরুল হাসান সোহান
কামব্যাক প্লেয়ার অব দ্যা টুর্নামেন্ট – তাসকিন আহমেদ
প্রমিজিং প্লেয়ার অব দ্যা টুর্নামেন্ট – রিশাদ হোসেন

  • প্রেসিডেন্টস স্পেশাল অ্যাওয়ার্ডঃ

১৷ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন
২৷ মাহেদি হাসান
৩৷ সুমন খান
৪৷ আফিফ হোসেন
৫৷ তৌহিদ হৃদয়

টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের জন্য দুঃস্বপ্নের টুর্নামেন্ট বলা যেতে পারে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপকে, তবে সেই তুলনায় টুর্নামেন্টকে নিজেদের দাবী করতেই পারে পেসাররা। বল হাতে স্বমহিমায় উজ্জ্বল ছিলেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদরা, বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন তরুণ পেসার সুমন খান, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধরা।

To Top