fbpx

শ্রীলকায় এক সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইন করতে চায় বিসিবি

তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ দলের, সিরিজের সূচি এখনও চূড়ান্ত না হলেই সফরটি চূড়ান্ত হয়েছে বেশ আগেই। তবুও বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আলাপ-আলোচনা চলছে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে, তার মধ্যে অন্যতম হলো শ্রীলঙ্কায় গিয়ে টাইগারদের কোয়ারেন্টাইনের সময়সীমা নির্ধারণ।

দীর্ঘদিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল, সর্বশেষ প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটেও খেলেছে গত এপ্রিলে। তাই তো প্রস্তুতির একটা ঘাটতি থেকেই যাচ্ছে, যেটা বিসিবি পুষিয়ে নিতে চায় শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ২১ দিনের কন্ডিশনিং ক্যাম্প করে। এটা মাথায় রেখেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড চেষ্টা করছে যাতে শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে না হয় মুমিনুল, মুশফিকদের।

বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর খুব কাছাকাছি এসে গেলেও কোয়ারেন্টাইনের ব্যাপারে এখনও কিছুই জানায়নি এসএলসি। এমন কি কোন তাদের পক্ষ থেকে পরিকল্পনাও পাঠানো হয়নি। শ্রীলঙ্কায় গিয়ে বিসিবি ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে চায় না, তারা ৭ দিনের বাধ্যতামূলক আইসোলেশনের পক্ষে মতামত দিয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছে। এই প্রসঙ্গে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন বাসসকে জানিয়েছেন, “আমরা চাই কোয়ারেন্টাইন সময় যতটা সম্ভব সংক্ষিপ্ত করা যায়। সাত দিনের কোয়ারেন্টাইন নিয়ে আলোচনা হয়েছে, তবে এখনও এটি চূড়ান্ত হয়নি।”

৭ দিনের কোয়ারেন্টাইনের প্রস্তাব পাঠালেও বাস্তবতা মেনে নিচ্ছেন নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন, কারণ শুধু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড চাইলেই কোয়ারেন্টাইনের সময় কমাতে পারবেন না; প্রয়োজন হবে সরকারের অনুমতিরও। বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থাকে তিনি আরও বলেন, “বিষয়টি পুরোপুরি শ্রীলংকা বোর্ডের উপর নির্ভরও করবে না। তাদের সরকার যা বলবে, তাই করবে। আমি যত টুকু জানি, এ বিষয়ে সরকারের সাথে তারা কথা বলবে যা আমাদের পরে জানানো হবে।”

কোয়ারেন্টাইনের সময় কমানোর প্রস্তাব দেওয়ার কারণও ব্যাখ্যা করেছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি বলেন, “অনুশীলনের জন্য পর্যাপ্ত সময় পেতে আমরা কোয়ারেন্টাইন পর্ব সংক্ষিপ্ত করতে অনুরোধ করেছি। কারণ, আমাদের মূল অনুশীলন ক্যাম্প শ্রীলংকায় হবে। একই সময়ে লংকা সফরে থাকা আমাদের এইচপি দলের সাথে কিছু ম্যাচ খেলবো, যারা একই সময় শ্রীলংকা সফর করবে।”

শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার আগে দেশেই এক সপ্তাহের কন্ডিশনিং ক্যাম্প করবে বাংলাদেশ দল, এরপর ২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার বিমানে ওঠার পরিকল্পনা করে রেখেছে বিসিবি। সিরিজের সূচি ঘোষণা না হলেও ২৪ অক্টোবর প্রথম টেস্টে মাঠে নামার কথা বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার, তাহলে শ্রীলঙ্কায় গিয়ে প্রস্তুতির জন্য প্রায় ১ মাস সময় পাবে বাংলাদেশ দল।