fbpx

এখনও সেরা ওয়ানডে ‘ফর্মুলা’ খুঁজছে অস্ট্রেলিয়া’

টি-টোয়েন্টি সিরিজে হারের পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নতুন মিশনে নামবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল, আজ থেকে শুরু হচ্ছে দুই দলের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। এই ফর্মেটের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইংলিশরা, তাদের বিপক্ষে সেরাটা দিয়েই লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। তবে দলটির অধিনায়ক জানিয়েছেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে লড়াইয়ের জন্য এখনও সেরা ওয়ানডে ‘ফর্মুলা’র খোঁজ করছে তারা।

গত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া, এরপর এই প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে দুই দল। ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে ৫ এ আছে অস্ট্রেলিয়া। শীর্ষে যেতে এখনও তারা নিজেদের সেরা ফর্মুলা খুঁজছে। অ্যারন ফিঞ্চ বলেন, “গত কয়েক বছর ধরে আমরা উন্নতি করেছি, তবে আমরা এখনও আমাদের সেরা ফর্মুলা ও সেরা ১১ জন খেলোয়াড় খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি। আমি মনে করি না যে এখানে কোন গোপনীয়তা কিংবা রহস্য আছে, এখানে আমাদের দুর্দান্ত সুযোগ রয়েছে। আমরা সত্যিই কিছু ভালো ক্রিকেট খেলেছি, আবার কখনও কখনও হতাশাজনক পারফর্মেন্স করেছি।”

২০২৩ বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করেই সব পরিকল্পনা সেটা আরও একবার জানিয়ে দিলেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। তিনি বলেন, “ওয়ানডে ক্রিকেটে সঠিক ফর্মুলা খুঁজে পাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ, আমি মনে করি এটা কেবল মাত্র একটি সামঞ্জস্যপূর্ণ স্কোয়াড নির্বাচনের সূত্র খুঁজে পাওয়াত মতো। আমরা আমাদের ওয়ানডে ক্রিকেটকে কিভাবে কাঠামোবদ্ধ করতে পারি এবং ২০২৩ বিশ্বকাপে আমাদের কোথায় যা দরকার সে গুলো নিয়ে কাজ করছি, করোনা বিরতিতেও এটা নিয়ে প্রচুর কাজ করেছি।”

ধারাবাহিক ভাবে জয়ের অভ্যাস গড়ে তোলাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মানছেন অ্যারন ফিঞ্চ, সেটা যখন অ্যাওয়ে সিরিজে খেলবেন। অস্ট্রেলিয়ার সাদা বলের এই অধিনায়ক বলেন, “আমরা প্রতিটা সময়েই বিভিন্ন তথ্য বিশ্লেষণ করে থাকি, আমাদের ধারাবাহিক ভাবে জয়ের অভ্যাস গড়ে তোলার এটা সেরা একটি সুযোগ। ওয়ানডে ক্রিকেট বিশেষ একটি ফর্মেট, বিশেষ করে আপনি যখন দেশের বাহিরে খেলবেন। ইংল্যান্ড ওয়ানডের শীর্ষ দল, আমি সবাইকে সতর্ক করতে চাই যে তাদের ব্যাট ও বলে বেশ কজন ‘ফায়ার পাওয়ার’ আছে।”

  আজ ছোট পর্দায় দেখতে পাবেন যত খেলা

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে আজ বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬ টায় প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া, সিরিজের বাঁকি ২ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ১৩ ও ১৬ সেপ্টেম্বর। টি-টোয়েন্টি সিরিজ হেরে যাওয়ায় ওয়ানডে সিরিজ জয়ে প্রতিশোধ নিতে চায় অস্ট্রেলিয়া, বিন্দুমাত্র ছাড় দিতে রাজি নয় ইংলিশরাও।