fbpx

বিশাল স্কোয়াড নিয়ে নিউজিল্যান্ডে যাবে পাকিস্তান দল

এ বছরের শেষের দিকে নিউজিল্যান্ড সফর করবে পাকিস্তান। ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে দুই দলের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। গুরুত্বপূর্ণ এই সিরিজকে সামনে রেখে বিশাল এক স্কোয়াড নিয়ে নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

‘প্রেস ট্রাস্ট অফ ইন্ডিয়া’র খবর অনুসারে, পিসিবি প্রায় ৪০ থেকে ৪৫ জন খেলোয়াড়ের এক বিশাল বহর নিউজিল্যান্ড সফরে পাঠাতে আগ্রহী। এর মধ্যে পাকিস্তান ‘এ’ দলের খেলোয়াড়ও রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

“কোভিড -১৯ বিধিমালা এবং নিউজিল্যান্ডের কোভিড-১৯ প্রোটোকলের কারণে প্রয়োজনের চেয়েও বেশি খেলোয়াড় থাকবেন দলে। খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফরা আগে ভাগেই পৌঁছাবেন সেখানে। পৌঁছানোর পরে থাকতে হবে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইনে। হোম কোয়ারেন্টাইন শেষে খেলোয়াড়েরা বায়ো-সিকিউরড প্রটোকলে প্রবেশ করবেন.” পিসিবির একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে খবরটি।

এই সফরে সিনিয়র দলের সিরিজ ছাড়াও, পাকিস্তান ‘এ’ দলের বেশ কয়েকটি চার দিনের ম্যাচ খেলার কথাও রয়েছে। তবে এত বেশি খেলোয়াড় নিউজিল্যান্ডে চলে যাওয়ায়, পিসিবির আসন্ন ঘরোয়া মৌসুম আয়োজন নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়েছে পিসিবি।

সুত্রটি আরও জানায়, “সমস্যা হচ্ছে, এত গুলো খেলোয়াড় নিউজিল্যান্ডে পাঠিয়ে দিলে আসন্ন ঘরোয়া লীগে খেলোয়াড় স্বল্পতা দেখা দিবে। যেটি অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দিচ্ছে আসন্ন ঘরোয়ার মৌসুমকে।”

জেনে রাখা ভালো, আগস্টের শুরুতে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (এনজেডসি) নিশ্চিত করে রেখেছেন যে- পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ এবং ওয়েস্টইন্ডিজের জাতীয় দল সবাই নিউজিল্যান্ড সফর করবে। যদিও করোনা ভাইরাস মহামারি এখনও নিয়ন্ত্রনের বাইরেই। এতগুলো সিরিজও নির্ভর করছে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড সফর নির্বিঘ্নে শেষ করার উপর।

নিউজিল্যান্ড সরকারের কোভিড-১৯ নীতিমালা অনুসারে অন্যান্য দেশ থেকে নিউজিল্যান্ড যেতে হলে, নিউজিল্যান্ডে পৌঁছে তাদের থাকতে হচ্ছে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের তুলনায় অবশ্য সেখানের কোভিড-১৯ পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।