ফিচারঃ শুভ হোক শুভর পথচলা।

ফিচারঃ শুভ হোক শুভর পথচলা।

গগণবিদারী চিৎকার নাসির হোসেন-সোহাগ গাজীর। আনন্দের আতিশয্যে ডাগআউট থেকে মুশফিকুর রহিম-শামসুর রহমান-নাঈম ইসলামরাও যোগ দিলেন আকাশ চিরে ফেলার খেলায়। কোলাকুলি, একে অন্যের পিঠ চাপড়ে দেওয়া- সবই হলো। করতালি-বৃষ্টির মাঝে জাতীয় পতাকা পতপত করে উড়ানো হলো।

বাঘের ডেরায় আবারও হোয়াইটওয়াশের দুঃসহ স্মৃতি নিয়েই ওয়ানডে সিরিজ শেষ করতে হলো কিউইদের। বাংলার দামাল ছেলেরা মাতলো বাংলা-ধোলাইয়ের উৎসবে! সিরিজ শুরু থেকেই ঘুরেফিরে আসছিল ২০১০ সালের স্মৃতি। এবারও কি হবে সিরিজ জয়? হবে কি বাংলাওয়াশ?

অবশ্য, বাংলাদেশের শুরুটাই হয়েছিল দুঃসংবাদ দিয়ে। প্রথম ওয়ানডে শুরুর ঠিক আগমুহূর্তে ডেঙ্গু জ্বরের কবলে পড়ে মাঠের বাহিরে গত সিরিজের সেরা সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে ছাড়াই শুরু হলো এবারের বাংলাদেশের কিউই-বধ মিশন। আর শেষ ম্যাচটা চোটে পড়ে খেলা হলোনা তামিম ইকবালেরও।

প্রথম দু’ম্যাচে জিতে সিরিজ আগেই নিজেদের করে নেয় বাংলাদেশ। প্রথম দুটি ম্যাচ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হলেও তৃতীয় ম্যাচটি হয় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায়। রস টেলরের হার না মানা শতক ও কলিন মুনরোর ফিফটিতে ৩০৭ রান সংগ্রহ করে কিউইরা। আপাতদৃষ্টিতে ৩০৭ রান খুব বেশী না হলেও, উপমহাদেশের কন্ডিশন আর ফতুল্লার উইকেটের বিবেচনায় রান পাহাড়ই বলা চলে।

সমর্থকদের মন তাই মেঘ কালো। খানিকটা শঙ্কা, খানিকটা ভয়। পারবে তো বাংলাদেশ? পারবে কি এই রান পাহাড় পাড়ি দিতে? হ্যাঁ! পেরেছিল। পেরেছিল পাহাড় টপকে লক্ষ্য ছুঁতে। সব উৎকন্ঠা দূর করে আরও একটা বাংলা ওয়াশের কাব্য লিখতে। নেপথ্যে ছিলেন মাত্র দ্বিতীয় ওয়ানডে খেলতে নামা শামসুর রহমান শুভ। তার ৯৬ রানে ভর করেই লিখা হয় এই কীর্তিগাথা।

আজ সেই শামসুর রহমান বাংলার ক্রিকেটের এক অবহেলিত নাম। ৬ টেস্ট আর ১০ ওয়ানডে ম্যাচেই থেমে আছে যার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার। অথচ, পর্যাপ্ত সুযোগ পেলে হতে পারতেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের অন্যতম সেরা একজন। অবহেলার শুরুটা শুরু থেকেই। কোন ম্যাচ না খেলে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার ঘটনা শামসুর রহমানকে এখনও তাড়িয়ে ফেরে।

  ফিচারঃ সৌরভের সৌরভে বিমোহিত বিশ্ব

২০০৯ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকলেও তাকে প্র্যাকটিস ম্যাচেও খেলানো হয়নি। ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট স্কোয়াডে থাকলেও খেলার সুযোগ পাননি। কোন কিছু না খেলে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ে গেলেন। অতঃপর ফিরলেন তিন বছর পর এই সিরিজটাই।

জানা নেই আবারও সুযোগ আসবে কিনা তার। তবে তার প্রতিটি সময়, প্রতিটি ক্ষণের জন্য শুভকামনা। আজ তার ৩২ তম জন্মদিন। আজকের এই দিনে ১৯৮২ সালে জন্ম তার। শুভ জন্মদিন শামসুর রহমান শুভ ।

আফফান উসামা, ক্রীড়া প্রতিবেদক।

CATEGORIES