ফিচারঃ শুভ জন্মদিন Great Servant of Bangladesh Cricket

ফিচারঃ শুভ জন্মদিন Great Servant of Bangladesh Cricket

বাঘেদের সফর থ্রি লায়ন্সের ডেরায়,পরাশক্তি ভারত অস্ট্রেলিয়াও যেই ভূমিতে খাবি খায়! উদ্বেগ আরো বাড়ায় পুরনো ও কঠিন মৌসুমের ইংলিশ গ্রীষ্ম; সবুজ গালিচার ক্যানভাসে সাপের ন্যায় ফণা তোলা সুইং! আর যদি হয় ক্রিকেট তীর্থভূমি খ্যাত লর্ডস কিংবা ওভালে, তবে?

বয়সটা মাত্র ১৬! দেশটা যখন ক্রিকেট মুখর তখন পাড়া-গাঁয়ে কিংবা ক্লাব চত্বরে ব্যাট-বল হাত্র মেতে থাকা অবাক হবার নয়; অবাক হবেন নাহ বয়স ভিত্তিক দলেও তার নাম দেখে। কিন্তু অবাক না হয়ে পারবেন নাহ, যখন দেখবেন ১৬ বছরের বাচ্চা ছেলেটাও যে সেদিন সিংহের আস্তানায়!

গাঁ গরম ম্যাচেই বাচ্চা ছেলেটা ক্রিকেট বিশ্বকে সতর্ক বার্তা দিয়েছিলো- বাচ্চা ভেবে অবজ্ঞা করিওনা! ইংলিশ মিডিয়া সেদিন তোলপাড় বাচ্চা ছেলেটার তান্ডবে; গর্জনে আর হ্যাঁ.. অর্জনেও! তাবৎ ক্রিকেট পন্ডিতের হতবাক চোখে মুগ্ধতার পরশ বুলিয়ে কিশোরটি শিশুটির কারুকার্যে জিওফ্রে বয়কট বলে বসেন, “আরে! ছোকরার টেকনিক তো জবরদস্ত!”

ক্রিকেট তীর্থের শ্বেত আঙিনায় ২৬শে মে ২০০৫ সাল।
ঢোলা হওয়া শুভ্র পোষাক আর গৌরবের টেস্ট-ক্যাপ উঠে দেহ-শিরে! শুরু হয় শিশুটির জন্য কিশোরের আত্মোৎসর্গের আনন্দমুখর এক অভিযাত্রা। তবে তা বিষাদে রূপান্তরিত হতে সময় নেয়নি! বার্তা পেয়ে যান, লড়াইটা নিজের!

অতঃপর সামর্থ্য আর বিচক্ষণতা আরও ক্ষুরধারের উদ্দেশ্যে, স্বীয় অবস্থান দৃঢ়চিত্ত আরও জমাট করতে সময়ের সঙ্গে আরও পোক্ত ও পরিপক্ক করতে এনেছেন মানসিকতায় পরিবর্তন; একাগ্রতা আর মনোযোগ জাগ্রত রেখে নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা! অগাধ পরিশ্রম আর অধ্যবসায়ে সুনিশ্চিত করেছেন স্বীয় সক্ষমতা ও যোগ্যতা!

সূদৃঢ় পরিকল্পনায় সঠিক বুদ্ধি প্রয়োগে অবশেষে তিনি সফল; উদ্যম চেষ্টা আর শ্রমের বিনিময়ে আজ তিনি তারকা; ক্রিকেট মহাকাশের ধ্রুব তারা! সময়ের সেরা আদর্শ তিনি; দায়িত্ববোধ আর লড়াকু চেতনায় প্রতিটি ক্ষন যার ভরপুর! মধ্যমাঠে যার উপস্থিতি মানেই নির্ভরতা ও সৌন্দর্যের চমৎকার মিশ্রণ। প্রশ্ন আসে তিনি কে?

  ফিচারঃ বাঘের গল্প– ১ | রকিবুল হাসান

কোটি সমর্থকের প্রত্যাশার চাপ কাঁধে তুলে ধারাবাহিকতার উর্দ্ধগামীতে খেলে যাচ্ছেন দিব্বি দৃষ্টিনন্দন! চাপের তাপেই নিজেকে তাতিয়ে নেন; হাজার ভোল্টের ঔজ্জ্বল্যে জ্বলে আপন শক্তিতে,স্বীয় মহিমায়! তিনি মুশফিকুর রহিম; Mr. Dependable of Bangladesh Cricket!

বাংলাদেশ ক্রিকেট আর তার পথ চলা যেন হাত ধরাধরি করে! বিশ্ব ক্রিকেটে আজকে যে বাংলাদেশ পাঞ্চ ছুঁড়ে দেয়, বড়দের ক্রিকেটে সম্ভ্রমের চোখে দাঁড়ায়, ছোট্ট শিশুটির এই বড়ত্বের রূপায়নে মূল রূপকারদের একজন এই মুশফিকুর রহিম!

উইকেটে সামনে কিংবা পিছনে যতক্ষণই আছেন তিনি, অভিব্যাক্তিতে বিচ্ছুরিত আত্মবিশ্বাসে যেন প্রতিপক্ষকে ব্যাকফুটে ঠেলেন অবিরাম। চাপের মুখে দাঁড়িয়ে হাঁটু ভেঙে ভাঙেন মিডউইকেটের দূরত্ব; প্রিয় স্লগ সুইপে বল বাতাসে ভাসিয়ে সীমানা ছাড়ান।

তার ভয়ডর নেই, আছে সাহস, আছে ব্যক্তিত্ব। তিনি ভাঙবেন তবু মচকাবেন না। তিনি হারবেন, তবে ব্যক্তিত্বহীন হবেন না। তিনি লড়বেন, কিন্তু শির নিচু রাখবেন না। আজও প্রতিনিয়ত প্রতি ক্ষণে তিনি নিজেকে ভাঙেন নতুন করে গড়বেন বলে!

১.৬ মিটার উচ্চতার ছোটখাটো দেহে দীর্ঘদেহী বোলারকে অনায়াসে দেখিয়েছেন সীমানা দড়ির উড়াল পথ। কবজি শক্তি বাহুর জোর, সংযম আর আত্মনিয়ন্ত্রণতার টাইমিংয়ে যার ব্যাটে রচিত হয়েছে অসংখ্য কাব্য উপন্যাস আর ইতিহাস! বিশ্বমঞ্চে ভারত বধ থেকে শ্রীলংকায় শৃঙ্গ জয়; গলের সেই অমরত্ব ভুলে যাননি তো?

দেড় দশকের ক্যারিয়ারে কত চাপ সামলেছেন নিদারুণ দক্ষতায়। চলার পথে বহুবার হোঁচট খেয়েছেন কিন্তু দমে যাননি; ভুল করেছেন, কিন্তু হতাশ হননি! মুখ থুবড়ে পড়া বাঘেদের, কাঁধে তুলে শুশ্রুষাও কম করেননি!

He is the great servant of Bangladesh Cricket বাক্যটি অকপটে বহুবার বলেছে বহুজন! তবে সব কিছুর উর্দ্ধে তার নিবেদন একাগ্রতা চেষ্টার তেষ্টা আর দেশাত্মবোধ! একজন মুশফিকুর রহিম মানেই বাংলার ক্রিকেটের আপাদমস্তক নিবেদিত প্রান!

আজ তার ৩২ তম জন্মদিন! ১৯৮৮ আজকের দিনেই তো বাংলার ক্রিকেটের মি. ডিপেন্ডেবলের প্রথম সূর্যের আভা গায়ে মাখা! শুভ জন্মদিন মুশফিকুর রহিম!

CATEGORIES