রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে শেষ হাসি প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের

রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে শেষ হাসি প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের


বঙ্গবন্ধু ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে প্রথম রাউন্ডের দ্বিতীয় দিনে দুই ফেভারিটের লড়াইয়ে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বিপক্ষে ৯ রানের রোমাঞ্চকর জয় পেয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব, প্রাইমের অধিনায়ক তামিম ৪৭ বলে ১৯ রান করেন।

প্রথমে ব্যাট করা প্রাইম ব্যাংকের ২৫১ রানের জবাবে দ্বিতীয় ওভারেই ওপেনার জাকির হাসানকে হারায় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স, দ্বিতীয় উইকেটে ৪৯ রান যোগ করেন সৌম্য সরকার ও মুমিনুল হক। ২৮ রান করেন মুমিনুল, দলীয় ১০৫ রানে ফিরে যান সৌম্যও। ফিফটি থেকে ১ রান দুরে থাকতে আউট হয়ে যান সৌম্য সরকার, গাজী গ্রুপের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৩২ ও আকবর আলী ৩১ রান করেন।

আর কেউ সেভাবে দাঁড়াতে পারেননি, একাই লড়াই করেছেন মাহেদি হাসান। তার অপরাজিত ৫৬ রানের ইনিংসের পরও ৯ রানের সমীকরণ মেলাতে পারেনি গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। তাদের ইনিংস থামে ২৪২ রানে, নাহিদুল ইসলাম ৩০ রানে ২ ও অলক কাপালি ৩২ রানে নেন ২ উইকেট। এর ফলে ৯ রানের জয় তুলে টুর্নামেন্টে শুভ সূচনা পায় প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব।

এর আগে টসে হারা প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে ভালো শুরু এনে দিতে পারেননি দলীয় অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও এনামুল হক বিজয়, ০ রানে ফিরে যান বিজয়। অতি সাবধানী তামিম ইকবাল আউট হওয়ার আগে ৪৭ বলে ১৯ রান করেন। রাকিবুল হাসান দ্রুত বিদায় নিলে চতুর্থ উইকেটে ৫৫ রান যোগ করে প্রাইম ব্যাংককে টেনে তোলার চেষ্টা করেন রনি তালুকদার ও মোহাম্মদ মিথুন।

২৭ রানে থামে মিথুনের ইনিংস, রনি তালুকদার ফিফটি তুলে নিয়ে ১০৪ বলে ৭ চার ও ২ ছয়ে ৭৯ রান করে আউট হয়ে যান। শেষ দিকে নাহিদুল ইসলামের ৫৩ ও নাঈম হাসানের ৪৬ রানে ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৫১ রানের সংগ্রহ গড়ে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব, ৫৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট পাওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের সেরা বোলার।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ২৫১/৬ (রনি তালুকদার ৭৯, নাহিদুল ইসলাম ৫৩, নাঈম হাসান ৪৬, মোহাম্মদ মিথুন ২৭, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৫৩/৩, নাসুম আহমেদ ৪০/২)।

গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স ২৪২/৯ (মাহেদি হাসান ৫৩*, সৌম্য সরকার ৪৯, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৩২, আকবর আলী ৩১, নাহিদুল ইসলাম ৩০/২, অলক কাপালি ৩২/২)।

ফলাফলঃ প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ৯ রানে জয়ী।