দর্শক শূন্য ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৭১ রানের জয় অস্ট্রেলিয়ার

দর্শক শূন্য ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৭১ রানের জয় অস্ট্রেলিয়ার

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একের পর এক উইকেট তুলে নিচ্ছেন প্যাট কামিন্স, মিচেল মার্শরা অথচ সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে কোন উচ্ছ্বাস নেই, ৬ মাস আগেও যদি এমন কিছু কেউ বলতো তাহলে তাকে পাগল আখ্যা দিতে খুব বেশি সময় নেওয়ার কথা ছিল না। তবে বর্তমান প্রেক্ষাপট ভিন্ন, পরিস্কার করে বললে মরণঘাতী ভাইরাস করোনা সব হিসেব পাল্টে দিয়েছে।

সিডনিতে ২৫৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে বড্ড অচেনা লাগছিলো নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার হেনরি নিকোলস ও মার্টিন গাপটিলকে। দুজনে মিলে খেলেছেন ৯৫ বল, বাউন্ডারি মাত্র ৩ টি, অজি পেসারদের সামলে পাওয়ার প্লেতে তুলতে পেরেছে ২৮ রান। ১০ রান করা হেনরি নিকোলসকে ফিরিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম ব্রেক থ্রো এনে দেন জস হ্যাজলউড, ৩৬ রান যোগ করেন গাপটিল ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। পর পর দুই ওভারে উইলিয়ামসন ও দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রস টেইলরকে তুলে নেন অ্যাডাম জাম্পা ও মিচেল মার্শ, গাপটিল ও জেমি নিশাম দ্রুত ফিরে গেলে ৯৬ রানেই পঞ্চম উইকেট হারায় কিউইরা।

মুলত তখনই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় নিউজিল্যান্ড, ইনিংসের সর্বোচ্চ ৫৩ রান যোগ করে পরাজয়ের ব্যবধান কমান টম লাথাম ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। লাথাম ৩৮ ও গ্র্যান্ডহোম ২৫ রান করেন, শেষ পর্যন্ত ৪১ ওভার ব্যাট করে অল আউট হওয়ার আগে ১৮৭ রান করে নিউজিল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৫ রানে ৩ উইকেট নেন প্যাট কামিন্স, ২৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট পেয়েছেন মিচেল মার্শ; ২ টি করে উইকেট অ্যাডাম জাম্পা ও জস হ্যাজলউডের।

এর আগে টসে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ, ওপেনিংয়ে নেমে ডেভিড ওয়ার্নারকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন ফিঞ্চ। দুজনেই তুলে নেন ৫০ রান, ১২৪ রানের উদ্ভোধনী জুটি ভাঙে ৬৭ রান করা ডেভিড ওয়ার্নারের বিদায়ে। ৬০ রান করে আউট হন অ্যারন ফিঞ্চও, এরপর দ্রুত ফিরে যান স্টিভেন স্মিথ ও ডি অর্চি শর্টও। যার ফলে বড় সংগ্রহের স্বপ্ন শেষ হয়ে যায় অজিদের, মারনাস ল্যাবুশেনের ৫৬ রানের ইনিংসে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫৮ রান করে অস্ট্রেলিয়া। ইশ সোধি ৫১ রানে নেন ৩ উইকেট, ২ টি করে উইকেট পেয়েছেন লোকি ফারগুসন ও মিচেল স্যান্টনার।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

অস্ট্রেলিয়া ২৫৮/৭ (ডেভিড ওয়ার্নার ৬৭, অ্যারন ফিঞ্চ ৬০, মারনাস ল্যাবুশেন ৫৬, মিচেল মার্শ ২৭, ইশ সোধি ৫১/৩, মিচেল স্যান্টনার ৩৪/২, লোকি ফারগুসন ৬০/২)।

নিউজিল্যান্ড ১৮৭/১০ (মার্টিন গাপটিল ৪০, টম লাথাম ৩৮, কলিন ডি গ্র‍্যান্ডহোম ২৫, কেন উইলিয়ামসন ১৯, প্যাট কামিন্স ২৫/৩, মিচেল মার্শ ২৯/৩, জস হ্যাজলউড ৩৭/২, অ্যাডাম জাম্পা ৫০/২)।

ছবি – আইসিসি

CATEGORIES