ডর্টমুন্ডকে হারিয়েও সমালোচিত নেইমার ও পিএসজি

ডর্টমুন্ডকে হারিয়েও সমালোচিত নেইমার ও পিএসজি

২০১৬ সালের পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ১৬-র বাঁধা টপকে আবারো কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখলো ফ্রেঞ্চ জায়ান্ট পিএসজি। ঘরের মাঠে ডর্টমুন্ডকে ২-০ গোলে হারিয়ে ৩-২ অ্যাগ্রিগেটে জেতে থমাস টাচেলের শিষ্যরা।

প্রথম লেগে সিগনাল ইদুনা পার্কে ২-১ গোলে হেরে আসার পর আবারো শেষ ১৬ থেকে ছিটকে যাওয়ার শংকা ছিল পিএসজির। পার্ক দি প্রিন্সেসে যেটুকু করার দরকার ছিল পিএসজির ঠিক সেটুকু করে দেখালেন নেইমাররা।

পুরো সপ্তাহ অসুস্থতার কারণে এমবাপ্পেকে একাদশে রাখেননি কোচ টাচেল। কিন্তু তাতে পিএসজির ফ্রন্ট লাইনে কোন প্রভাব পড়তে দেননি নেইমার। ম্যাচের আধা ঘন্টা হওয়ার আগেই গোল করে দলকে ১-০ তে এগিয়ে নেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

ডি মারিয়ার ক্রসের অ্যাসিস্ট হেডে খেলার অ্যাগ্রিগেট সমতায় আনেন নেইমার। বিরতির বাঁশি বেজে ওঠার আগেই হুয়ান বের্নাটের গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। স্কোরবোর্ডে ২-০’র সাথে সাথে অ্যাগ্রিগেটেও এগিয়ে যায় ফ্রেঞ্চ ক্লাবটি।

নরওয়েজিয়ান ওন্ডার কিড আর্লিং হালান্ডের প্রথম চ্যাম্পিয়ন্স লীগ মিশন সমাপ্ত হয় রাউন্ড অফ সিক্সটিনেই। তবে ম্যাচের মধ্যেই তাকে ট্রলের শিকার হতে হয়। প্রথম গোলের পরেই পিএসজি ফরোয়ার্ড নেইমার হালান্ডের বিখ্যাত জেন সেলিব্রেশনের নকল করেন।

দ্বিতীয়ার্ধে কোন গোল হয়নি তবে ম্যাচের শেষদিকে খেলোয়াড়দের মধ্যে উত্তাপ ছড়ালে ডর্টমুন্ডের মিডফিল্ডার চ্যান লাল কার্ড ও পিএসজির মার্কুইনহোস, ডি মারিয়া, এমবাপ্পেরা হলুদ কার্ড দেখেন।

এরপর জয় নিশ্চিতের পর পুরো পিএসজি দলই হালান্ডের সেলিব্রেশনের নকল করেন, যা অবশ্যই তাকে সম্মান দেখানোর উদ্দেশ্যে ছিল না। পরবর্তীতে এমবাপ্পেকে ড্রেসিংরুমেও সেই সেলিব্রেশন করতে দেখা যায়।

মিডিয়াতে ইতিমধ্যেই পিএসজির ক্লাস নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে এমন কীর্তির জন্য। চলতি সপ্তাহের চ্যাম্পিয়ন্স লীগে একমাত্র দল হিসেবে কামব্যাক করে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করল পিএসজি।

পিএসজি ২-০ বরুশিয়া ডর্টমুন্ড

নেইমার ২৮’
বের্নাট ৪৫’+১’

CATEGORIES
TAGS